যে সাধারণ কাজে জান্নাতে প্রবেশ করবে না

Alternative Text
,
প্রকাশিত : ০৯ জুন, ২০১৮     আপডেট : ৪ বছর আগে

’চুগলখোর জান্নাতে প্রবেশ করবে না।’ (মুসলিম) অথচ আমরা অনেকে জানিই না এটা কি- নামীমা বা চুগলখোরী হচ্ছে, পারস্পরিক সম্পর্ক বিনষ্টের উদ্দেশ্যে কোনো ব্যক্তি অপর ব্যক্তির ব্যাপারে কোনো কথা বললে অপর ব্যক্তির কাছে তা ফেরি করে বেড়ানো বা তাকে গিয়ে সেটা বলে দেওয়া অর্থাৎ একের কথা অন্যকে লাগানো যাতে করে তাদের মধ্যে সম্পর্ক নষ্ট হয়। এটি অন্যতম কবিরা গুনাহ।
রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এ ব্যাপারে বলেন: ‘চুগলখোর জান্নাতে প্রবেশ করবে না।’ (মুসলিম: ১০৫)
সহীহ বুখারী ও মুসলিমে ইবন আব্বাস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহুমা হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,
‘নবী (সাঃ) একদা দুটি কবরের পাশে দিয়ে অতিক্রম করলেন। তারপর বললেন, দুটো কবরবাসীকে আযাব দেয়া হচ্ছে। অবশ্য বিরাট কোনো কঠিন কাজের জন্য তাদের শাস্তি হচ্ছে না। (অর্থাৎ যা থেকে বেঁচে থাকা কোনো কঠিন বিষয় ছিল না) তাদের একজন প্রস্রাব করে পবিত্রতা অর্জন করতো না। অপরজন মানুষের মধ্যে চুগলখোরি করে বেড়াত।’ ( বুখারী: ১৩৭৮; মুসলিম: ২৯২)
বস্তুত: নামীমা বা চুগলখোরি ব্যক্তি, সমাজ ও মুসলিমদের মধ্যে বিচ্ছিন্নতা সৃষ্টি করা এবং তাদের মধ্যে শত্রুতার আগুন লাগিয়ে দেওয়া।
* আল্লাহ তা‘আলা বলেন:
﴿ وَلَا تُطِعۡ كُلَّ حَلَّافٖ مَّهِينٍ ١٠ هَمَّازٖ مَّشَّآءِۢ بِنَمِيمٖ ١١ ﴾ [القلم: ١٠، ١١]

‘আর তুমি আনুগত্য করো না প্রত্যেক এমন ব্যক্তির যে অধিক কসমকারী, লাঞ্ছিত। পিছনে নিন্দাকারী ও যে চুগলখোরী করে বেড়ায়।’ {সূরা আল-কালাম, আয়াত: ১০-১১}
সুতরাং যে আপনার কাছে অপরের নিন্দা ও চুগলখোরি করে সে আপনার ব্যাপারেও চুগলখোরি করে বেড়ায়। সুতরাং তার থেকে সতর্ক থাকুন। এবং নিজেও সর্বাত্মকভাবে দূরে থাকুন এই পাপ থেকে। (শাইখ মুহাম্মাদ ইবনে সলেহ আল উসাইমিন (রঃ)-রমজান মাসের ৩০ আসর)


আরও পড়ুন