সুনামগঞ্জ – সিলেটের প্রিয়মুখ : এডভোকেট মোঃ রাজ উদ্দিন

,
প্রকাশিত : ০৬ এপ্রিল, ২০২২     আপডেট : ৩ মাস আগে

 মোহাম্মদ আব্দুল হক
সমাজের নিরহংকারী মানুষ ধীরে ধীরে আরো আরো অনেক মানুষের মাঝে নিজেকে নিয়ে যান তাঁর কর্মময় জীবনের ব্যস্থতায়। খুব বেশি স্ব – উদ্যোগে প্রকাশ হওয়ার প্রচুর সুযোগ থাকার পরেও কেউ কেউ নিজের প্রচার ঘটানোর ব্যাপারে থাকেন উদাসীন। কিন্তু সময়ে সমাজের মানুষই ওইসব কীর্তিমান মানুষকে খুঁজে নেয় এবং সম্মানিত করে। এমনই একজন প্রচারবিমুখ সাদা মনের মানুষ মোঃ রাজ উদ্দিন। তিনি একজন আইনজীবী হিসেবে বহুল পরিচিত সিলেট বিভাগের সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলায়। এখানে নিজের দায়বদ্ধতা থেকে আমাদের সমাজের একজন ভালো মানুষ হিসেবে তাঁর সম্পর্কে কিছু লিখতে ইচ্ছে করছি ।

সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার খুরমা দক্ষিণ ইউনিয়নের চেচান গ্রামে পিতা হাজী সোনাহর আলী ও মাতা হাসিনা বিবি ‘র কোলে ১৯৫২ খ্রীষ্টিয় সালের ০৫ ফেব্রুয়ারী জন্ম গ্রহণ করেন মোঃ রাজ উদ্দিন। তাঁর পিতা একজন দাতা এবং শিক্ষানুরাগী, তিনি চেচান পশ্চিম পাড়া জামে মসজিদের প্রতিষ্ঠাকালীন ভূমি দাতা এবং সিলেট – সুনামগঞ্জের মধ্যবর্তী স্থানে সিবিপি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভূমি দাতাদের অন্যতম।

মোঃ রাজ উদ্দিন ১৯৬৯ খ্রীষ্টিয় সালে পাইগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ১৯৭২ খ্রীষ্টিয় সালে এমসি কলেজ সিলেট থেকে এইচএসসি ও ১৯৭৫ খ্রীষ্টিয় সালে সিলেট সরকারি কলেজ থেকে বিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। শিক্ষা জীবনের পরবর্তী পর্যায়ে তিনি ১৯৮০ খ্রীষ্টিয় সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ঢাকা সেন্ট্রাল ল কলেজ থেকে এল এল বি ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর ১৯৮০ খ্রূীষ্টিয় সালে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলে তালিকাভুক্ত হয়ে ওই বছরই সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতিতে যোগদান করে আইন পেশায় নিযুক্ত হন। সেই থেকে এখন ২০২২ খ্রীষ্টিয় সাল পর্যন্ত অর্থাৎ ৪২ বছর ধরে নিজেকে আইন পেশায় নিয়োজিত রেখেছেন। এই সময়ে তিনি ১৯৯১ খ্রীষ্টিয় সাল থেকে ২০১৭ খ্রীষ্টিয় সাল পর্যন্ত গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক ‘নোটারী পাবলিক সমগ্র বাংলাদেশ’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৯ খ্রীষ্টিয় সাল থেকে ২০১৮ খ্রীষ্টিয় সাল পর্যন্ত সরকারি কৌসুলী ( ভিপি, জিপি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ২০২০ খ্রীষ্টিয় সালের ১১ ফেব্রুয়ারী থেকে সিলেট জেলা জজ আদালতে সরকারি কৌসুলী ( জি পি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করে চলেছেন।

আইন পেশায় নিয়োজিত থাকার পাশাপাশি তিনি সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িয়ে পড়েন। সংক্ষেপে কিছুটা তুলে ধরছি – তিনি রেড – ক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য। তিনি সিলেটস্থ ছাতক সমিতির সভাপতি হিসেবে দুইবার দায়িত্ব পালন করেন। এরপর সিলেটস্থ সুনামগঞ্জ সমিতির সভাপতি হিসেবেও তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। এডভোকেট মোঃ রাজ উদ্দিন বর্তমানে সিলেট – সুনামগঞ্জ যাত্রী কল্যাণ পরিষদের সমন্বয়ক এবং সুনামগঞ্জ জেলার বিখ্যাত ও সুপরিচিত জাউয়া বাজার উপজেলা বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক।

এডভোকেট মোঃ রাজ উদ্দিন সিলেটের একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। তিনি ছাত্র জীবন থেকে প্রগতিশীল ছাত্র রাজনীতি সচেতন। পরবর্তী জীবনে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর রাজনৈতিক আদর্শের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। তিনি সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগ এর সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য এবং সহ – সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর জাতীয় পরিষদ সদস্য। তিনি রাজনৈতিক জীবনে অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এবং ২০০৪ খ্রীষ্টিয় সালে সিলেটের হোটেল গুলশানে গ্রেনেড হামলার শিকার হয়ে গুরুতর আহত হয়েছিলেন।

তিনি এখনও আইন পেশায় নিয়োজিত আছেন। এডভোকেট মোঃ রাজ উদ্দিন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির বিভিন্ন সময়ে নির্বাচিত সমাজ বিষয়ক সম্পাদক, সহসম্পাদক, যুগ্ম-সম্পাদক, এবং সিনিয়র সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন সিলেটের বিজ্ঞ আইনজীবীদের সমর্থন নিয়ে। এছাড়াও তিনি ২০২০ থেকে ২০২২ খ্রীষ্টিয় সাল পর্যন্ত তিন বারের কার্যকরী কমিটির সদস্য। তিনি রাজনীতি সচেতন এবং সকল সময় বাংলাদেশের রাজনীতির সাথে সরাসরি যুক্ত আছেন এবং পাশাপাশি সামাজিক কর্মকাণ্ডেও তাঁর সরব উপস্থিতি লক্ষণীয়। আমি ছাত্র জীবন থেকে তাঁকে চিনি। বৃহত্তর সিলেটের এবং পাশাপাশি সারাদেশ ও আন্তর্জাতিক খবরাখবর জানার জন্যে তিনি সকাল হলেই অপেক্ষা করে থাকেন পত্রিকার জন্যে, তিনি প্রতিদিন একাধিক পত্রিকা পড়েন। তিনি আমার ভগ্নিপতি, আমার লেখার একজন পাঠক এবং দৈনিক সিলেটের ডাক এর উপসম্পাদকীয় কলামে আমার লেখা যেদিন প্রকাশিত হয়, তিনি আমাকে আনন্দের সাথে জানিয়ে দিয়ে আমাকে অনুপ্রেরণা যুগিয়ে থাকেন। আমি তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি খুব কাছে দেখতে পাই, তিনি খুবই সাদাসিধা জীবনের একজন সাদা মনের মানুষ।

কীর্তিমান মানুষ নিজের গৌরবময় কাজের দ্বারা জন্মদাতা পিতা ও গর্ভধারিণী মাতাকে সম্মানিত করেন এবং পাশাপাশি এমন কীর্তিমান সন্তানের জন্যে নিজের এলাকার নাম পরিচিত হয়ে যায় অনেক দূরের মানুষের মাঝে আর এলাকার গৌরব বৃদ্ধি পায়। রাজনীতিবিদ এডভোকেট মোঃ রাজ উদ্দিন সুনামগঞ্জ জেলার প্রবেশদ্বারে অবস্থিত গোবিন্দগঞ্জ আব্দুল হক স্মৃতি কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এডভোকেট মোঃ রাজ উদ্দিন শিল্প শহর ছাতক উপজেলার সুনামগঞ্জ জেলার সিলেট বিভাগের গৌরব সন্তান।।
# লেখক _ মোহাম্মদ আব্দুল হক
কলামিস্ট ও সাহিত্যিক


আরও পড়ুন

নারী দিবসকে সামনে রেখে তৃণমূল নারী উদ্যোক্তা সোসাইটির সভা

         তৃণমূল নারী উদ্যোক্তা সোসাইটি সিলেট...

এবার কমলগঞ্জে ৫ মিনিটেই বিদ্যুৎ সংযোগ

         কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ঃ ‘শেখ...

সিলেটে আওয়ামী লীগ এখন অনেক চাঙ্গা

         সিলেট সিটি কর্পোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে...

সৌহাদ্য ও সম্প্রীতির মাধ্যমে সিলেটে বড়দিন পালিত হচ্ছে

         নিজস্ব প্রতিবেদক:- সৌহাদ্য ও সম্প্রীতির...